শিরোনাম : এইচ এস সি ও সমমান পরীক্ষার ফলাফল জানতে ক্লিক করুন এবং চট্টগ্রাম বোর্ডের ওয়েবসাইট চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডে পাসের হার ৬১.০৯, জিপিএ-৫ পেয়েছে ১৩৯১ Stop button Start button

 

  ফেইসবুকে ভক্ত হোন টুইটারে ভক্ত হোন গুগল প্লাস এ ভক্ত হোন। সাহায্য বিজ্ঞাপন শুল্ক পাঠক প্রতিক্রিয়া রেজিস্ট্রেশন

 

১৮ জুলাই মঙ্গলবার ২০১৭ খ্রিঃ ৩ শ্রাবন ১৪২৪ সাল ২৩ শাওয়াল ১৪৩৮ হিজরি
চট্রগ্রাম
আজকের দিনের তাপমাএা সংরক্ষিত নেই।

আজকে অনলাইন জরিপের জন্য কোন প্রশ্ন সংরক্ষিত নেই।
প্রথম পাতা   বিস্তারিত  

প্রকৌশল বিভাগের সমন্বয় সভায় মেয়র ।। ১৫ দিনের মধ্যে ভাঙা রাস্তা সংস্কারের নির্দেশ

আজাদী প্রতিবেদন

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দীন ১৫ দিনের মধ্যে নগরীর ক্ষতিগ্রস্ত সড়কসমূহের খানাখন্দক সংস্কারের কাজ শেষ করার নির্দেশ দিয়েছেন। তিনি এ সময়ের মধ্যে ক্ষতির পরিমাণ নির্মাণ, ক্ষতিগ্রস্ত রাস্তাসমূহের টেন্ডার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা এবং সকল উন্নয়ন কাজের ডিপিপি তৈরি করে প্রশাসনিক অনুমোদন নিয়ে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে পেশ করার নির্দেশ দিয়েছেন।

মেয়র বলেন, সাধারণ জনগণ যেকোন ভোগান্তির জন্য সিটি কর্পোরেশনকে দায়ী করে থাকে। তাই সিডিএ, ওয়াসা, গ্যাস কোম্পানি ও টিএন্ডটিসহ সেবায় নিয়োজিত সকল সরকারী সংস্থার সাথে সমন্বয় করে নাগরিক ভোগান্তি নিরসনে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনকে অতন্দ্র প্রহরীর ভূমিকায় নিয়োজিত থাকতে হবে।

তিনি বলেন, সেবায় নিয়োজিত সকল সংস্থাকে চিঠিপত্রের মাধ্যমে এবং সরাসরি যোগাযোগ করে সমন্বয় করার দায়িত্ব প্রকৌশলী বিভাগকে পালন করতে হবে। প্রসঙ্গক্রমে মেয়র বলেন, রাজনৈতিক স্বার্থ চরিতার্থ করা ছাড়াও একটি মহল চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের সেবাধর্মী কার্যক্রমকে প্রশ্নবিদ্ধ করার জন্য অপপ্রচারের আশ্রয় নিয়ে থাকে। তারা নিজেরদের সমস্যাকে আড়াল করার জন্য নিজেদের দোষ ও অপকর্ম অন্যের ঘাড়ে চাপিয়ে দিয়ে সস্তা জনপ্রিয়তা অর্জন করার হীনপ্রয়াসে লিপ্ত। এ সকল কার্যক্রম দৃশ্যমান থাকলেও চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন ধৈর্য্য ও সহনশীল হয়ে নাগরিক স্বার্থকে সর্বোচ্চ প্রাধান্য দিয়ে সেবা কার্যক্রম অব্যাহত রাখছে। মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, তিনি দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকে প্রকৌশল বিভাগ সহ চসিকের সকল শাখা-প্রশাখায় নিয়োজিতদের সুযোগ-সুবিধা, বেতন-ভাতা শতভাগ নিশ্চিত করা হয়েছে। কারোর কোন ধরনের অভাব অভিযোগ নেই। তা সত্ত্বেও কর্মক্ষেত্রে কর্মবিমুখতা কাজে অবহেলা এবং ফাঁকি দেয়ার প্রবণতা লক্ষ্য করা যাচ্ছে- যা কাম্য নয়। কাজের প্রতি মনোযোগী এবং দায়িত্বের প্রতি সচেতনতা আবশ্যক। চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন এবং সরকারের উজ্জ্বল ভাবমূর্তিকে আরো উজ্জ্বল করতে প্রকৌশলীদের সদা সচেষ্ট থাকতে হবে। তার ব্যত্যয় হলে পরিণাম শুভ হবে না। নগরভবনে কেবি আবদুচ ছত্তার মিলনায়তনে গতকাল অনুষ্ঠিত প্রকৌশল বিভাগের ১৬ তম সমন্বয় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র এ সকল কথা বলেন।

সভায় সভাপতিত্ব করেন প্রধান প্রকৌশলী লে. কর্নেল মহিউদ্দিন আহমেদ। সভায় প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সামসুদ্দোহা, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম, মো. মাহফুজুল হক, আনোয়ার হোছাইন, মনিরুল হুদা, আবু ছালেহ, কামরুল ইসলাম সহ সিভিল, যান্ত্রিক ও বিদ্যুৎ উপ শাখা সমূহের নির্বাহী প্রকৌশলী, সহকারী প্রকৌশলী ও উপ সহকারী প্রকৌশলীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। সভায় ১৫ তম সমন্বয় সভার কার্যবিবরণী অনুমোদন করা হয়। এছাড়াও নিয়ম শৃংখলা মেনে চলা, সীমানা বিরোধ নিষ্পত্তি করা, প্যাচওয়ার্ক অব্যাহত রাখা, দরপত্র সম্পন্ন করা এবং ডিপিপি প্রস্তুত করা সহ নানা বিষয়ে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

পাঠকের মন্তব্য [০]   |    [২২৮] বার পঠিত

মন্তব্য প্রদানের জন্য( সাইনইন) করুন । নতুন ইউজার হলে (নিবন্ধন ) করুন ।