শিরোনাম : ব্যতিক্রমী আয়োজন একুশের ক্যালেন্ডার প্রদর্শনী গ্রামাঞ্চলের জন্য সৌরশক্তি চালিত অ্যাম্বুলেন্স হাজারখানেক ওপাড়ে গিয়েছিল পরিচয়পত্রের আশায় ।। আনান কমিশন যাওয়ার পর এসেছে আরও পাঁচ হাজার রোহিঙ্গা স্যার টাকা ছাড়া ফাইল নড়ে না ।। মন্ত্রীকে দেখে অভিযোগ ভুক্তভোগীর এলএ শাখার ৩ কর্মচারী স্ট্যান্ড রিলিজড ছিনতাইয়ের কথা স্বীকার করলো যুবলীগ নেতার ভাই দর্শকশূন্য খেলার মাঠ ।। প্রচারণা নাকি আগ্রহ-কোনটি কম Stop button Start button

 

  ফেইসবুকে ভক্ত হোন টুইটারে ভক্ত হোন গুগল প্লাস এ ভক্ত হোন। সাহায্য বিজ্ঞাপন শুল্ক পাঠক প্রতিক্রিয়া রেজিস্ট্রেশন

 

১২ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার ২০১৭ খ্রিঃ ২৯ পৌষ ১৪২৩ সাল ১৩ রবিউস সানি ১৪৩৮
    আজকের দিনে কোন ফিচার পাতা সংরক্ষিত নেই।
চট্রগ্রাম
আজকের দিনের তাপমাএা সংরক্ষিত নেই।

আজকে অনলাইন জরিপের জন্য কোন প্রশ্ন সংরক্ষিত নেই।
প্রথম পাতা   বিস্তারিত  

সু চির দূতের সাথে বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী ।। অনুপ্রবেশকারীদের ফেরত নিতে হবে মিয়ানমারকে

ঢাকা সফররত মিয়ানমারের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীকে তাদের দেশ থেকে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশকারী সবাইকে ফিরিয়ে নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। নির্যাতনের মুখে বাংলাদেশমুখী রোহিঙ্গা স্রোত নিয়ে আন্তর্জাতিক মহলে আলোচনার মধ্যে শান্তিতে নোবেলজয়ী মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সিলর অং সান সু চির বিশেষ দূত হিসেবে ঢাকা এসেছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী উ চ থিন। খবর বিডিনিউজের।

গতকাল বিকেলে গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করেন তিনি। পরে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম এ বিষয়ে সাংবাদিকদের জানান। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, মিয়ানমার থেকে তাদের যেসব ন্যাশনাল বাংলাদেশে মাইগ্রেট করেছে তাদেরকে ফেরত নিতে হবে। দীর্ঘদিন ধরে পাঁচ লাখের বেশি রোহিঙ্গার ভার বহন করা আসছে বাংলাদেশ। এর মধ্যে মাস দুয়েক আগে রাখাইনে সেনা দমন অভিযানের মুখে নতুন করে বাংলাদেশে আসতে শুরু করে রোহিঙ্গা। এই দফাই ইতোমধ্যে ৫০ হাজারের বেশি মানুষ মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে ঢুকেছে বলে সরকারের ভাষ্য। মিয়ানমারের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীকে প্রতিবেশীদের সঙ্গে সুসম্পর্কে বাংলাদেশের গুরুত্ব দেওয়ার কথা তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী। মিয়ানমারের সঙ্গে সম্পর্ক জোরদারে প্রয়োজনীয় সব কিছু করার আশ্বাস দেন তিনি। রোহিঙ্গা ইস্যুসহ দ্বিপক্ষীয় বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে বাংলাদেশের আগ্রহের কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, আমাদের সমস্যা আমরা দু’দেশ মিলেই স্থায়ী সমাধান করতে পারি। বাংলাদেশের উন্নয়ন অভিজ্ঞতা মিয়ানমার শেয়ার করতে পারে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ সরকারের ‘জিরো টলারেন্স’ নীতির কথা তুলে ধরেন শেখ হাসিনা। বাংলাদেশের মাটি ব্যবহার করে প্রতিবেশী যে কোনো দেশে বিচ্ছিন্নতাবাদী কর্মকাণ্ড চালাতে না দেওয়ার বিষয়েও সরকারের কঠোর অবস্থান জানান তিনি। অং সান সু চির একটি চিঠি প্রধানমন্ত্রীকে হস্তান্তর করেন উ চ থিন। সু চির দূত বলেন, মিয়ানমার দুই দেশের মধ্যে সহযোগিতা আরো ঘনিষ্ঠ করতে চায়। দুই দেশের সীমান্তরক্ষীদের মধ্যে তথ্যের আদান-প্রদানের প্রয়োজনীয়তাও তুলে ধরেন তিনি। দূতের মাধ্যমে অং সান সু চিকে বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রণ জানান প্রধানমন্ত্রী। বৈঠকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এএইচ মাহমুদ আলী, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিব সুরাইয়া বেগম, পররাষ্ট্র সচিব শহীদুল হক উপস্থিত ছিলেন।

 

পাঠকের মন্তব্য [০]   |    [২১২] বার পঠিত

মন্তব্য প্রদানের জন্য( সাইনইন) করুন । নতুন ইউজার হলে (নিবন্ধন ) করুন ।